‘দেখিয়ে দেব, সিআরপিএফ কী সুন্দর খেলছে আমার সঙ্গে’: Anubrata


নিজস্ব প্রতিবেদন:  ‘ইলেকশনের দিন কোথাও বেরোই না, পার্টি অফিসে থাকি’। কমিশনের নজরবন্দি নির্দেশে প্রতিক্রিয়া অনুব্রত মণ্ডলের (Anubrata Mandal)। ফের বললেন, ‘খেলা হবে, ভয়ঙ্কর খেলা হবে। যাঁরা থাকবে, তাঁরা খেলবে আমার সঙ্গে’। কটাক্ষ করতে ছাড়লেন না বিজেপিকেও।

২০১৬-র বিধানসভা নির্বাচনের পর ২০১৯-র লোকসভা ভোট, রেহাই মিলল না একুশেও। অষ্টম দফার আগে ফের অনুব্রত মণ্ডলকে নজরবন্দি করল কমিশন। এই দফায় ভোট হবে বীরভূমের ১০টি আসনেও। তৃণমূলের জেলা সভাপতির সোজাসাপ্টা প্রতিক্রিয়া, ‘১৪ সাল থেকে আজ পর্যন্ত এটাই কমিশনের রুটিন। নির্বাচন শান্তিপূর্ণই হবে। খেলা হবে, ভালো খেলা হবে’।

কখনও ‘চড়াম-চড়াম’, তো কখনও আবার ‘গুড়-বাতাস’। ভোট এলেই খবরের শিরোনাম চলে আসেন অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mandal)। কমিশন নজরবন্দি করার পর কী কৌশল নেবেন? অনুব্রতের জবাব, ‘ইলেকশনের দিন কোথাও বেরোই না। পার্টি অফিসেই থাকি। খেলা হবে, ভয়ঙ্কর খেলা হবে। যাঁরা থাকবে, তাঁরাও খেলবে আমার সঙ্গে। দেখিয়ে দেব, সিআরপিএফ কী সুন্দর খেলছে আমার সঙ্গে। খেলা আবার বন্ধ হয় নাকি’! এরপরই বিজেপি কটাক্ষ, ‘মানুষ দেখলে আলাদা কথা। ছায়া দেখলেই ওরা ভয় পাচ্ছে। দেওয়ালে ছায়া উঠলেও ভয় পাচ্ছে’। তাঁর কথায়, ‘গ্রামের মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভোট দেবেন। ২২০-২৩০ সিট পাবে তৃণমূল’।

আরও পড়ুন: Covid-এ মৃত্যু ২ আইনজীবীর, ১০ দিন কর্মবিরতিতে হাওড়া আদালতের আইনজীবীরা

কমিশন সূত্রে খবর, ভোটের মুখে অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ জমা পড়ে। প্রাথমিক তদন্তের পর বীরভূমের পুলিস সুপার যে রিপোর্ট দিয়েছেন, সেই রিপোর্টের ভিত্তিতে অনুব্রতকে নজরবন্দি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, যাতে ভোট প্রক্রিয়ায় ব্যাঘাত না ঘটে। আজ অর্থাৎ মঙ্গলবার বিকেল ৫ টা থেকে ৩০ তারিখ অর্থাৎ শুক্রবার সকাল ৭টা পর্যন্ত অনুব্রতের উপর নজর রাখবেন এগজিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও কেন্দ্রীয় বাহিনী। গোটা প্রক্রিয়াটির ভিডিওগ্রাফিও করা হবে।



Supply hyperlink

Leave a Reply