সংক্রমণ বাড়ছে লাফিয়ে, Covid চিকিত্সায় বেসরকারি হাসপাতালগুলির ১৩৬৭ বেড নিল রাজ্য সরকার


নিজস্ব প্রতিবেদন: গত একদিন রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১৬,৪০৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ৭৩ জনের। আর গোটা দেশে একদিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে তিন লাখেরও বেশি। এরকম এক পরিস্থিতিতে রাজ্যের বেসরকারি হাসপাতালগুলিতে ১,৩৬৭ বেড করোনা চিকিত্সার জন্য নিয়ে নিল রাজ্য সরকার। আজ এক নির্দেশিকা জারি করে তা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন‘কোনও ঘাটতি নেই’, যোগী আদিত্যনাথের ঘোষণার পর Oxygen-র অভাবে ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৮

রাজ্যের মোট ২৪টি বেসরকারি হাসপাতালে ওইসব বেডের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ওইসব হাসপাতালের সুপারদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, স্বাস্থ্য ভবন বা সংশ্লিষ্ট জেলা স্বাস্থ্য দফতরের সুপারিশ মতো করোনা রোগীদের ভর্তি করতে হবে। রোগীদের সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য রাখতে হবে। যেসব রোগী স্বাস্থ্যভবন বা সংশ্লিষ্ট জেলা স্বাস্থ্য দফতরের সুপারিশ ছাড়া ভর্তি হবেন তাদের বেসরকারি রোগী বলে গন্য করা হবে। রাজ্যের কোন কোন হাসপাতালে বেড নেওয়া হয়েছে তার একটি তালিকাও দেওয়া হয়েছে স্বাস্থ্য ভবনের তরফে।

রাজ্যে যে হারে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে তাতে সরকারি হাসপাতালে আর রোগীদের জায়গা হচ্ছে না। ফলে বেসরকারি হাসপাতালগুলিকে আগেই তৈরি থাকতে বলেছিল রাজ্য সরকার। পাশপাশি এও বলা হয়েছিল বেসরকারি হাসপাতালের ৬০ শতাংশ বেড রাখতে হবে করোনা রোগীদের জন্য। শনিবার এনিয়ে একটি নির্দেশিকা জারি করে স্বাস্থ্য কমিশন।

আরও পড়ুন-বেহাল স্বাস্থ্য পরিকাঠামো, বাইকে চাপিয়ে শ্মশানে মায়ের মৃতদেহ নিয়ে গেলেন ছেলে-জামাই

কমিশনের তরফে ওই নির্দেশিকায় বলা হয়, করোনা সংক্রমণ যেভাবে বাড়ছে তাতে বেডের সংখ্যা না বাড়ালে বহু মূল্যবান প্রাণ অকালে ঝরে যাবে। ফলে বেসরকারি হাসপাতালগুলির ৪০ শতাংশ শয্যা রাখতে হবে আপাতকালীন চিকিত্সা, ডে কেয়ার বেড, জরুরি অস্ত্রোপচার ও ডায়ালিসিসের জন্য। বাকী ৬০ শতাংশ বেড রাখতে হবে একমাত্র করোনা রোগীদের(Covid sufferers)জন্য। 

রাজ্যের বহু বেসরকারি হাসপাতাল তাদের বেডের সংখ্যা বাড়িয়েছে। একথা মেনে নিয়েও কমিশনের তরফে বলা হয়েছে, হাসপাতালের ৬০ শতাংশ শষ্যা করোনা রোগীদের জন্যই থাকবে। কোনওভাবে যেন তার একটাও অন্য কাজে ব্যবহার না হয় বা সংখ্যা কমিয়ে না দেওয়া হয়।



Supply hyperlink

Leave a Reply