Adhir Chowdhury’s letter to election fee allegation in opposition to Mamata Banerjee


নিজস্ব প্রতিবেদন: ২০১৮ সালের পঞ্চায়েত ভোটের মতো বিধানসভা ভোট করাতে চাইছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। নির্বাচন কমিশনকে (Election Fee) চিঠি দিয়ে এই অভিযোগ করলেন অধীর চৌধুরী (Adhir Chowdhury)। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির দাবি, মুর্শিদাবাদ জেলা দখল করতে বহরমপুরে পড়ে রয়েছেন তৃণমূল নেত্রী। প্রশাসনিক কর্তা ও দলের গুন্ডাদের নিয়ে মুর্শিদাবাদে বুথ দখলের কৌশল সাজাচ্ছেন। সপ্তম দফার আগে মুর্শিদাবাদে রাত্রিবাস করে মমতা বিধিভঙ্গ করছেন বলে অভিযোগ করেছে বিজেপি। কমিশনে চিঠিও দিয়েছে তারা।    

অধীরের (Adhir Chowdhury) বক্তব্য, ২০১৮ সালে পঞ্চায়েত ভোটে রাজ্য প্রশাসনকে কাজে লাগিয়ে রিগিং ও বুথ দখল করেছিল শাসক দল। ২০১৯ সালে একই কায়দায় বিরোধী বুথ এজেন্টদের ভয় দেখিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। গোটা ভোটিং প্রক্রিয়াকে লুঠ করেছিল তৃণমূল। ২০২১ সালেও একই পদ্ধতি অনুসরণ করতে চলেছে! স্বচ্ছ ও নির্বিঘ্ন ভোটব্যবস্থায় তিনি ব্যাঘাত ঘটাতে সক্ষম হলে, তা হবে মুশির্দাবাদের মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকারের অপমান। আপনাদের কাছে অনুরোধ করছি, শাসক দল ও রাজ্যের প্রশাসনের যে কোনও ধরনের অনিষ্টকর কাজকর্ম থেকে মুর্শিদাবাদকে বাঁচান।

একটি ভিডিয়ো বার্তায় অধীর (Adhir Chowdhury) বলেন,”এখানে তিনি ৩ দিন ধরে অপেক্ষা করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুর্শিদাবাদ জেলায় বিধানসভা নির্বাচনকে ২০১৮ সালে পঞ্চায়েত ভোটে রূপান্তরিত করতে চান। মানুষের ভোটদানের অধিকার কেড়ে নিতে পুলিসের একাংশ ও তৃণমূলী হার্মাদদের সঙ্গে মমতার নেতৃত্বে চলছে শলাপরামর্শ। ওঁর কলকাতায় গিয়ে সারা বাংলার করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে মনোনিবেশ করা উচিত। তা না করে বহরমপুরে বসে মুর্শিদাবাদ ভোট নিয়ন্ত্রণ করতে চাইছেন।” তাঁর হুঁশিয়ারি, কান খুলে শুনে রাখুন, মুর্শিদাবাদের মানুষ বলছে, কত ক্ষমতা দেখে নেব। পুলিসের একটা অংশের দালালি ও তৃণমূলের হার্মাদদের যৌথ সন্ত্রাস উপেক্ষা করেই মানুষ ভোট দিতে যাবে। সারা জীবনের মতো অযোগ্য মুখ্যমন্ত্রীকে নির্বাসনে পাঠাবে।

মুর্শিদাবাদে (Murshidabad) মমতার রাত্রিবাস নিয়ে আপত্তি তুলে নির্বাচন কমিশনে ইতিমধ্যেই অভিযোগ করেছে বিজেপি (BJP)। তাদের দাবি, সপ্তম দফায় ভোটগ্রহণ ওই জেলায়। বিধি অনুযায়ী মমতা থাকতে পারেন না। এমন কোনও নিয়ম নেই বলে পাল্টা জানিয়েছে তৃণমূল (TMC)। অধীরের অভিযোগের প্রেক্ষিতে তৃণমূলের তরফে প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হওয়ার আগে পর্যন্ত কোনও প্রতিক্রিয়া আসেনি। 

আরও পড়ুন- প্রেসক্রিপশন ছাড়া Oxygen বিক্রি নয়, নেওয়া যাবে না বেশি দাম, কড়া স্বাস্থ্য দফতর

 



Supply hyperlink

Leave a Reply